Home » হোস্টিং খরচ কমানোর সহজ কিছু কৌশল
নিবন্ধ

হোস্টিং খরচ কমানোর সহজ কিছু কৌশল

web hosting

একটি ওয়েবসাইট চলমান রাখার জন্য যে কয়টি খাতে খরচ করতে হয় তার মধ্যে অন্যতম হলো হোস্টিং খরচ। সাধারনত ক্ষুদ্র ও মাঝারি মানের ওয়েবসাইটগুলোর ৮০% বা তারও বেশি পরিচালন খরচ হয় হোস্টিং এর পেছনে! আর আমরা সবাই জানি খরচ যত কম হবে লাভ তত বেশি হবে। সুতরাং হোস্টিং খরচ কমিয়ে আনতে পারলে ওয়েবসাইট পরিচালনার খরচ বহুলাংশে কমে যায় এবং ওয়েবসাইট থেকে বেশি মুনাফা পকেটে ঢুকানো যায়।

হোস্টিং খরচ কমাতে যে কৌশলগুলো কাজে লাগাতে পারেন-

* ভিডিও এমবেড করুন: ওয়েবসাইটে যদি কোন ভিডিও আপলোড করার প্রয়োজন পরে তাহলে আগে দেখুন সেই ভিডিওটি ইউটিউব, ফেসবুক, ডেইলি মোশন বা এধরনের কোন ভিডিও স্ট্রিমিং সাইটে রয়েছে কিনা। যদি থাকে তাহলে ভিডিওটি নিজের সাইটে আপলোড না করে সেখান থেকে এমবেড করে দিন। এতে আপনার সাইটের ভিজিটররা ভিডিওটি দেখতে পারবে কিন্তু ভিডিওটি আপনার ডাটাবেজে রাখেননি বলে আপনার হোস্টিং খরচ হবেনা, পাশাপাশি ব্যান্ডউইথও খরচ হবেনা। যে ওয়েবসাইট থেকে ভিডিওটি এমবেড করেছেন তাদের হোস্টিং খরচ হবে।

* গুগল ড্রাইভ কাজে লাগান: আপনি যদি আপনার ওয়েবসাইটে গান, ভিডিও, গেমস, পিডিএফ বই বা অন্য কোন ফাইল ভ্রমনকারিদের ডাউনলোড করার জন্য দিতে চান তাহলে সেই ফাইলগুলো সরাসরি আপনার ওয়েবসাইটে আপলোড না করে তার পরিবর্তে গুগল ড্রাইভে আপলোড করে সেই ফাইলের লিংকটি আপনার ওয়েবসাইটে দিয়ে দিতে পারেন। ভিজিটরেরা সেই লিংকে ক্লিক করে সেখান থেকে ফাইলটি ডাউনলোড করে নিতে পারবে। এতে করে ফাইলগুলোর জন্য আপনাকে বাড়তি হোস্টিং স্পেস খরচ করতে হবেনা। গুগুলের যে কোন গ্রাহক বিনামূল্যে ১৫ জিবি পর্যন্ত ফাইল গুগল ড্রাইভে সংরক্ষন করে রাখতে পারবে।

* ফাইল কমপ্রেসড করুন: বড় আকারের ফাইল কমপ্রেসড করে সংকুচিত করে তারপর তা ওয়েবসাইটে আপলোড করুন। এতে আপনার সাইটের স্টোরেজ স্পেস অনেকখানি বেচে যাবে।

* ছোট সাইজের ছবি ব্যবহার করুন: সাইটের বিভিন্ন পোস্টে ব্যবহারের জন্য যথাসম্ভব ছোট সাইজের ছবি ব্যবহার করুন। এক পরিসংখানে দেখা যায় যে, সারা পৃথীবিতে সব ওয়েবসাইট মিলে যতখানি হোস্টিং খরচ হয় তার বেশিরভাগই হয় ছবির কারনে। সুতরাং যত কম সাইজের ছবি ব্যবহার করবেন তত বেশি হোস্টিং স্পেস বেচে যাবে।

* একই ছবি একাধিক পোস্টে ব্যবহার করুন: ওয়েবসাইটে ছবি আপলোড করার সময় দূর্রদর্শীতার পরিচয় দিন। চেষ্টা করুন এমন ছবি আপলোড করতে যেন একটি ছবি একাধিকবার কাজে লাগানো যায়। যেমন ধরুন আপনার ওয়েবসাইটে হয়তো মোবাইল ফোন নিয়ে বেশ কিছু পোস্ট দেয়ার পরিকল্পনা করেছেন। তাই সেই পোস্টের সাথে মোবাইলের ছবি আপলোড করতে চান। এখন প্রতিটি পোস্টের জন্য আলাদা আলাদা ছবি ব্যবহার না করে এমন একটি ছবি আপলোড করুন যেটি আপনি একাধিক পোস্টে ব্যবহার করতে পারবেন।

* লেখা অতিরিক্ত বড় করবেন না: অপ্রয়োজনে লেখাকে টেনে অতিরিক্ত বড় করবেন না। যদিও লেখার জন্য খুব সামান্যই হোস্টিং স্পেস খরচ হয় তবুও অপ্রয়োজনে সামান্য খরচ করারই বা কি দরকার? এছাড়া লেখা বেশি বড় হলে এবং পোস্টে ছবি বেশি থাকলে সেই পেজ লোড হতে বেশি সময় লাগে, যা ওয়েবসাইটের জন্য একটি নেতিবাচক দিক হয়ে দাড়ায়।

* এক্সটার্নাল লিংক প্রদান করুন: ধরুন আপনার সাইটে একটি আর্টিকেল বা নিউজ প্রকাশ করবেন এবং প্রসংগক্রমে সেই আর্টিকেল বা নিউজের সাথে কিছু বাড়তি তথ্য যোগ করার প্রয়োজন হলো। এখন যদি দেখেন ইতিমধ্যেই সেই তথ্যটি অন্য একটি ওয়েবসাইটে সুন্দর করে গুছিয়ে দেয়া আছে তাহলে আপনি নিজে সেই তথ্যটি আবারও না লিখে যেই সাইটে তথ্যটি আগে থেকেই সুন্দর করে দেয়া আছে সেই সাইটের লিংকটি আপনার পোস্টে দিয়ে দিতে পারেন। ভিজিটরের প্রয়োজন হলে তারা সেখান থেকে তথ্যটি দেখে নিবে।

* পুরাতন পোস্ট কেটে দিন: সময় পেরিয়ে যাওয়ার ফলে অপ্রাসংগিক হয়ে গেছে এমন পুরাতন ফাইল এবং পোস্ট ওয়েবসাইট থেকে ডিলিট করে দিতে পারেন। যেমন ধরুন আপনি গত বছর একটি ক্রিকেট খেলার স্কোর নিয়ে পোস্ট করেছিলেন বা বাজার দর নিয়ে পোস্ট করেছিলেন যা এখন আর দরকার নেই, এমন পুরাতন পোস্টগুলো কেটে দিন।

# আরো পড়ুন: ওয়েবসাইটের ব্যান্ডউইথ খরচ কমানোর কৌশল

আরো বেশ কিছু উপায়ে হোস্টিং খরচ কমিয়ে আনা যায়, তবে আমি সহজ কৌশলগুলোই এখানে তুলে ধরেছি। উপরে উল্লেখিত কৌশলগুলো মেনে চললে আপনারা ওয়েবসাইট হোস্টিং খরচ অনেকটাই কমিয়ে আনতে পারবেন বলে আশা করি। ভালো লাগলে শেয়ারর করে আমাদের উৎসাহ দেয়ার অনুরোধ রইলো। আপনাদের ওয়েবসাইট পরিচালনা আরো লাভজনক হয়ে উঠুক সেই কামনা করি। ধন্যবাদ।

Add Comment

Click here to post a comment

এই সপ্তাহের সর্বাধিক দেখা ভিডিও:

বাংলাদেশীদের জন্য সেরা অ্যাপ

BD MEDIA MATE APP SCREENSHOT

আমাদের ওয়েবসাইটের জনপ্রিয় পোস্টগুলি:

BEST APP FOR US PEOPLE

US MEDIA MATE APP