নিবন্ধ

চুলে তেল দেয়ার সঠিক নিয়ম

চুলের যত্ন , চুলে তেল দেয়ার সঠিক নিয়ম

আমরা সবাই চুলে তেল দেই কিন্তু চুলে তেল দেয়ার সঠিক নিয়ম জানিনা । কখন, কিভাবে, কি পরিমানে তেল দিলে তা চুলের যত্নে বেশি কার্যকর ভূমিকা রাখবে তা নিয়েই আমাদের এই লেখা । চুলে সঠিকভাবে তেল দেয়ার জন্য আহামরি কোন কঠিন নিয়ম মানতে হবেনা । শুধুমাত্র সাধারন কয়েকটি বিষয় লক্ষ্য রাখলেই হবে । আর তেল বলতে আমরা মূলত নারিকেল তেলের কথা বোঝাচ্ছি, কারন সাধারনত সারা পৃথীবিতেই চুলে দেয়ার জন্য নারিকেল তেল সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয়। নারিকেল তেলে রয়েছে উপকারি ফ্যাটি এসিড যা চুলের যত্নে ভালো ভূমিকা পালন করে । চলুন তবে শুরু করা যাক ।

চুলে তেল দেয়ার সঠিক নিয়ম জানুন

* তেল দেয়ার আগে মাথা এবং চুল পরিষ্কার রাখা: চুলে তেল দেয়ার আগে অবশ্যই চুল ও মাথা ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিতে হবে । ময়লা ও ধূলাবালি যুক্ত মাথায় তেল দিলে তা দ্রুত আরো নোংরা হয়ে যাবে এবং মাথায় ধূলাবালি আটকে গিয়ে মাথার ত্বকে ময়লার প্রলেপ পরে যাবে । এতে চুলের গোড়া নষ্ট হয়ে চুল পড়ে যাবে । তাই তেল দেয়ার আগে এবং পরে চুল ও মাথা অবশ্যই পরিষ্কার রাখতে হবে । তাই বাইরে থেকে এসে বা ধূলাবালি থাকা অবস্থায় কখনো চুলে তেল দিতে যাবেননা ।

* গোসলের পর তেল দেয়া: গোসলের পর চুলে তেল দিলে তা ভালোভাবে মাথার তালু এবং চুলে মিশানো যায় । শুকনো অবস্থায় চুলে তেল দিতে গেলে বেশি তেলের প্রয়োজন হয় ও বেশি তেল দেয়ার পরও চুলে তেল ভালোভাবে মিশানো যায়না । গোসলের পর মাথা মুছে ফেলার পরও বেশ কিছুক্ষন চুলে একটা ভেজা ভেজা ভাব থাকে । খেয়াল করে দেখবেন তখন তেল দিলে তা সহজে চুলে ভালোমতো মিশানো যায় । তাই চেষ্টা করবেন গোসলের পর পর মাথা মুছে তেল দেয়ার জন্য । তবে সরাসরি ভেজা চুলে তেল দেয়া উচিত নয়।

* তেলের পরিমান: ছেলেদের ক্ষেত্রে এক চা চামচের চার ভাগের একভাগ তেলই যথেষ্ট তবে মেয়েদের বেলায় একটু বেশি প্রয়োজন হয়ে থাকে । মেয়েদের ক্ষেত্রে ১ চা চামচ তেল দেয়া যেতে পারে তবে তাতে না হলে সর্বোচ্চ থেকে দেড় চা চামচ তেল দিবেন । এর চাইতে বেশি দেয়ার প্রয়োজন নেই । তেল প্রথমে আংগুলের ডগায় লাগিয়ে নিবেন তারপর তা চুলের গোড়ায় আলতো ভাবে ঘষে ঘষে লাগাবেন । এভাবে চুলের গোড়ায় তেল দেয়া সবচেয়ে কার্যকরি । এরপর অবশিষ্ট তেল চুলের বাকি অংশ ও চুলের আগায় লাগিয়ে নিবেন ।

* তেল দেয়ার সময়সূচি: আমার পরামর্শ হলো ছুটির দিনে বা যেদিন বাইরে যাওয়ার প্রয়োজন হবেনা সেদিন চুলে তেল দিন । এতে করে চুলে ধূলাবালি মিশবেনা, তেল সঠিকভাবে কাজ করতে পারবে । এছাড়া চাইলে সারাদিনের কাজ সেরে বিকালে বা সন্ধ্যায় বাসায় ফিরে তেল দিতে পারেন । রাতে ঘুমানোর আগে মাথা ধুয়ে ফেলবেন বা গোসলও করতে পারেন ।

যাদের মাথার ত্বক স্বাভাবিক তারা সপ্তাহে ১ বার চুলে তেল দিতে পারেন, যাদের ত্বক শুষ্ক তারা সপ্তাহে ২ বার তেল দিবেন । আর যাদের ত্বক তৈলাক্ত তারা ৮-১০ দিন পর পর একবার তেল দিবেন । তবে বিভিন্ন রূপচর্চা বিষয়ক ওয়েবসাইট ঘুরে আমি যেটুকু জেনেছি তা হলো চুল যেমনই হোক, সপ্তাহে ২ বারের বেশি তেল দেয়া উচিত নয় এবং চুলে তেল দেয়ার পর ১২-২৪ ঘন্টা তেল মাথায় রেখে তারপর ধুয়ে ফেলা ভালো । তেলের পরিমান বেশি হয়ে গেলে বা যাদের মাথার ত্বক তৈলাক্ত তারা চাইলে চুল ভালোমতো পরিষ্কার করার জন্য শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলতে পারেন ।

সব কিছুরই নির্দিষ্ট নিয়ম রয়েছে যা মেনে চলা উচিত। তেমনি চুলে তেল দেয়ারও কিছু নিয়ম-কানুন রয়েছে যা আমরা উপরে তুলে ধরেছি । আশা করি উপরে উল্লেখিত চুলে তেল দেয়ার সঠিক নিয়ম সমূহ মেনে আপনারা তেল দিবেন । ধন্যবাদ ।

ট্যাগ গুলো

মতামত যোগ করুন

মতামত দিতে ক্লিক করুন

error: দুঃখিত, অনুলিপি করা যাবে না ! পরে এই কন্টেন্ট প্রয়োজন হলে আপনার সামাজিক অ্যাকাউন্টের সাথে ভাগ করুন।