নিবন্ধ

পুরুষের সন্তান জন্মদান ক্ষমতা বৃদ্ধি করে যেসব খাবার

বিবাহিত জীবনে সবাই আশা করে একটি সন্তানের। তবে অনেক সময় এই আশাটাই দুরাশা হয়ে দাড়ায়। সন্তান না হওয়ায় অনেক সুখের সংসারে নেমে আসে অশান্তি। অনেক সময় তা বিচ্ছেদ পর্যন্ত গিয়ে গড়ায়। নষ্ট হয় সুন্দর জীবন।

এক সময় মনে করা হতো সন্তান না হওয়ার পিছনে মেয়েরাই দায়ি কিন্তু পরে দেখা যায় সন্তান জন্মদানে শুধু মেয়ে নয় বরং ছেলেদেরও অক্ষমতা থাকতে পারে। আর সন্তান জন্মদানে ছেলেদের অক্ষম হওয়ার মূল কারন হলো বীর্যের গুনগত মান ভালো না হওয়া। ছেলেদের বীর্য যদি সন্তান জন্ম দেয়ার মতো যথেস্ট ভালো না হয় তবে যতই চেষ্টা করা হোকনা কেন তাতে সফলতা আসবেনা।

বর্তমানে আবহাওয়া ও জলবায়ু পরিবর্তন, পরিবেশ দূষন, খাদ্যাভাস পরিবর্তন, খাদ্যে ভেজাল ও জীবনযাত্রার ধরন সঠিক পথে না চলা সহ বিভিন্ন কারনে সারা দুনিয়াতেই পুরুষের সন্তান জন্মদানের ক্ষমতা আশংকাজনক ভাবে কমে গেছে। কয়েকবছর আগে পরিচালিত এক হিসাবে দেখা গেছে বর্তমানে সারা পৃথীবিতেই অন্তত ৪% পুরুষ সন্তান জন্মদানের অক্ষমতায় ভুগছেন। অথ্যাৎ গড়ে প্রতি ২৫ জন পুরুষের মাঝে একজন পুরুষ সন্তান জন্মদানে অক্ষম হয়ে পরেছেন এবং এই সংখ্যা ধীরে ধীরে আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে।

ফলে এই সমস্যা সমাধানে বিজ্ঞানি ও গবেষকরা খুজে বের করেছেন এমন কিছু নিয়ম-কানুন ও খাবার যা পুরুষের বীর্যের মান বৃদ্ধি করে বা মান খারাপ হয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করে। আর এই লেখায় আমরা এমন কিছু খাবারের বিষয়ে আপানাদের জানাবো যা পুরুষের বীর্যের মান উন্নত করার মাধ্যমে পুরুষের সন্তান জন্মদান ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। চলুন তাহলে দেখে নেয়া যাক কি কি খেলে পুরুষের সন্তান জন্মদান ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

বীর্যের মান উন্নত করার মাধ্যমে পুরুষের সন্তান জন্মদান ক্ষমতা বৃদ্ধি করে যেসব খাবার

রসুন: রসুন একটি খুবই পরিচিত ও বহুল ব্যবহৃত খাবার। এটি সবসময় হাতের নাগালেই পাওয়া যায়। আমরা জানি যে নিয়মিত পরিমানমতো রসুন খেলে যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। তবে রসুন শুধু যৌন ক্ষমতাই বৃদ্ধি করেনা, পাশাপাশি এটি পুরুষের বীর্যের মান উন্নত করতেও বিরাট ভুমিকা রাখে।

কলা: রসুনের মতো কলাও ছেলেদের সন্তান জন্মদানের ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। কলা সবজি এবং ফল- দুইভাবেই খাওয়া যায়। তবে নিয়মিত পাকা কলা খেলে তা বেশি উপকারে আসে বলে ধারনা করা হয়। কলার বেমোনাইল এন্জাইম যৌন উদ্দীপকের অন্যতম নিয়ন্ত্রক। এছাড়াও কলায় আছে ভিটামিন এ, ভিটামিন বি১ ও ভিটামিন সি যার সবগুলোই ছেলেদের বীর্যের মান বাড়াতে সহায়তা করে।

কলা সবসময়, সবজায়গাতেই পাওয়া যায় আবার দামও কম। তাই কলাকে আপনার খাদ্য তালিকায় অবশ্যই রাখতে পারেন।

কালোজিরা: কালোজিরায় রয়েছে ১৫ ধরনের এমোইনো এসিড। যা শরীরের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ন। এছাড়াও কালোজিরায় রয়েছে ৩৮% শর্করা ও ২১% প্রোটিন। নিয়মিত কালোজিরা খেলে বীর্যের পরিমান বাড়াতে ও বীর্যের মান উন্নত করতে সহায়তা করে। এছাড়াও কালোজিরায় রয়েছে আরো নানাবিধ উপকারিতা। সুতরাং নিয়মিত কালোজিরা খান।

লেবু জাতীয় ফল: যে কোন লেবুজাতীয় ফল যাতে ভিটামিন সি রয়েছে তা পুরুষের বীর্যের মান উন্নত করার মাধ্যমে প্রকারন্তরে পুরুষের সন্তান জন্মদান ক্ষমতাকে বৃদ্ধি করে থাকে।

তৈলাক্ত মাছ: তৈলাক্ত মাছে রয়েছে প্রচুর পরিমান ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড। এটি বীর্যের গুনগত মান উন্নয়েন সহায়তা করে। নিয়মিত তৈলাক্ত মাছ খেয়ে থাকেন এমন কিছু মানুষের উপর জরিপ চালিয়ে দেখা গেছে যে, অন্য সাধারন মানুষদের তুলনায় নিয়মিত তৈলাক্ত মাছ খেয়ে থাকেন এমন মানুষদের বীর্যের মান বেশি ভালো।
এছাড়াও তৈলাক্ত মাছ মানুষের মস্তিস্কে যৌন উত্তেজন ডোপামিনের উৎপাদন বাড়িয়ে দেয় ফলে এটি এক ধরনের যৌন উত্তেজক খাবার হিসেবেও কাজ করে।

গরুর মাংস: গরুর মাংস ডায়াবেটিস রোগী ও এলার্জি সমস্যায় আক্রান্ত রোগিদের জন্য ক্ষতিকর। এছাড়া এটি হৃদরোগের ঝুকিও বাড়ায়, তাই গরুর মাংসকে আমরা কিছুটা খারাপ চোখেই দেখি কিন্তু সবকিছুরই ভালো-খারাপ উভয় দিকই রয়েছে তেমনি গরুর মাংসেরও একটি ভালো দিক হলো, এটি ছেলেদের বীর্যের পরিমান বৃদ্ধি করে এবং মান উন্নত করে। গরুর মাংসে বেশ ভালো পরিমানে প্রোটিন রয়েছে যা বীর্যের উৎপাদন বৃদ্ধি করে। এছাড়া গরুর মাংসে রয়েছে জিংক যা যৌন মিলনের আগ্রহ বাড়ায়।

ডর্ক চকোলেট: ডার্ক চকোলেট যেমন মুখরোচক খাবার তেমনি এটি বীর্যের মান উন্নত করতেও বিরাট ভূমিকা রাখে। আমরা অনেকেই হয়তো ডার্ক চকোলেটের এই বিশেষ উপকারিতাটি জানিনা, তবে কিছুটা অবাক করা ঘটনা হলেও এটাই সত্য বলে জানাচ্ছেন গবেষকরা। তাই ডার্ক চকোলেট খেতে পারেন নিশ্চিন্তে।

বীর্যের মান ও পরিমান বৃদ্ধি করার মাধ্যমে উপরের খাবারগুলো পুরুষের সন্তান জন্মদান ক্ষমতা বৃদ্ধি করে থাকে। তাই নিয়মিত উপরে উল্লেখিত খাবারগুলো খেলে এবং যৌন স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর এমন অভ্যাসগুলো বাদ দিলে তা ছেলেদের সন্তান জন্মদান ক্ষমতাকে বৃদ্ধি করতে সহায়তা করবে বলে আশা করা যায়। লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করে উৎসাস দেয়ার অনুরোধ রইলো। নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইট ভ্রমন করার আমন্ত্রন রইলো। ধন্যবাদ।

মতামত যোগ করুন

মতামত দিতে ক্লিক করুন

error: দুঃখিত, অনুলিপি করা যাবে না ! পরে এই কন্টেন্ট প্রয়োজন হলে আপনার সামাজিক অ্যাকাউন্টের সাথে ভাগ করুন।