নিবন্ধ

ফ্রিল্যান্সিং কি এবং কেন ফ্রিল্যান্সিং করবো ?

ফ্রিল্যান্সিং বর্তমানে একটি জনপ্রিয় কর্মক্ষেত্র। খুব সহজে এবং বিনা পুজিতে আপনি ফ্রিল্যান্সিং শুরু করতে পারেন। আমাদের দেশে অনেক প্রতিভা আছে, আছে অনেক সম্ভাবনা শুধু দরকার তাদেরকে সঠিক তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করা। শুধু মাত্র সঠিক তথ্য এবং দিকনির্দেশনার অভাবে আমরা পিছিয়ে যাচ্ছি। আমার এই লেখাতে আমি চেষ্টা করব, কিভাবে আপনি ফ্রিল্যান্সিং শুরু করবেন।

ফ্রিল্যান্সিং কি?

ফ্রিল্যান্সিং মানে হলো মুক্ত পেশা । মানে কোন কাজ ধরা বাধা ভাবে না করে বা কোন প্রতিষ্ঠানে নিয়মিত কর্মী হিসেবে যোগ না দিয়ে সময় সুযোগ মতো কাজ করাকেই আমরা ফ্রিল্যান্সিং বলতে পারি ।
সহজ কথায় ফ্রিল্যান্সিং হল অন্য কারো কাজ করে দেয়া। আমাদের দেশে ফ্রিল্যান্সিং বলতে আমরা বুঝি অন্য দেশের কাজ একটা মার্কেটপ্লেস থেকে যোগাযোগ করে, কাজ নেয়া এবং সেটা করা। তবে ফ্রিল্যান্সিংয়ের কাজ যে অন্য দেশ থেকেই পেতে হবে এমন কোন কথা নেই । আপনি দেশিয় প্রতিষ্ঠানের জন্যও কাজ করতে পারেন ।

কিভাবে কাজ পাবেন ?

odesk. Elance, freelancer, আরও অনেক সাইট রয়েছে যেখানে আপনি বিনা মুল্যে নিবন্ধিত হতে পারেন । এসব সাইটে অনেক প্রতিষ্ঠান তাদের কাজের জন্য কর্মী খুজে থাকে । আপনি সেখান থেকে তাদের সাথে যোগাযোগ করে কাজ পেতে পারেন।

ফ্রীল্যান্সিং এর সুবিধা

ফ্রীল্যান্সিং এর অনেক সুবিধা আছে, যেমন আপনি নিজে নিজের কাজ ঠিক করতে পারছেন, নিজের পছন্দ মত কাজ বেছে নেয়ার সুযোগ, মার্কেট সম্পর্কে ধারনা পাবেন, আন্তর্জাতিক মানের কোম্পানির সাথে কাজ করার সুযোগ, নিজের পরিচয় এবং কাজকে অন্যকে জানাতে পারছেন, অবশ্যই আপনি উপার্জন করছেন, আপনার দক্ষতা যাচাই করার সুযোগ পাচ্ছেন, সর্বোপরি এই বিশ্বায়নের যুগে নিজেকে প্রস্তুত করতে পারছেন।

কি কি ফ্রীল্যান্সিং করতে পারেন- অনেক ধরনের কাজ আছে, আপনি আপনার পছন্দ এবং যোগ্যতা অনুযায়ী যেকোনো কাজ করতে পারেন। তবে আপনি যে কাজটি করবেন, তার মান ভালো হতে হবে এবং আপনার মক্কেল কে খুশি করতে হবে । তাহলে আপনি বেশি বেশি কাজ পাবেন । ওয়েব ডিজাইন, প্রোগ্রামিং, সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশান, লেখালেখি, ডিজাইন করা, অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট করা, গ্রাফিক্স ডিজাইন ইত্যাদি আপনাকে ভিন্ন উচ্চতায় নিয়ে যেতে পারে। শুধু মাত্র টাকা উপার্জন করার জন্য ফ্রীল্যান্সিং করা এবং নিজের অমূল্য সময় নষ্ট করা একই কথা। আপনাকে অবশ্যই এমন কাজ বেছে নেয়া উচিত যেটা আপনার ভবিষ্যতে কাজে লাগবে। আপনি এমন কাজ করেন, যেটা দিয়ে আপনি অর্থ উপার্জন করতে পারবেন, গর্ব করতে পারবেন এবং ভবিষ্যতে আপনার কাজে লাগবে।

ফ্রীল্যান্সিং এর জন্য প্রয়োজন সঠিক দিকনির্দেশনা –

সঠিক দিকনির্দেশনা পেলে, আপনিও হতে পারেন একজন সফল ফ্রিলানসার। এক্ষেত্রে আমার পরামর্শ হল, গতানুগতিক কোন প্রথিষ্ঠান না গিয়ে, সফল ফ্রিলানসারদের সহযোগিতা নেয়া, তাদের কাছ থেকে সরাসরি হাতে কলমে শিক্ষা নেয়া, কেননা তারা কাজ করেছে , তারা জানে কথাই ভুল হয়, কোনটা করা ভাল আর কোনটা করা ঠিক না।

নিজেকে ফ্রীল্যান্সিং এর জন্য তৈরি করুন- প্রথমে কোন কিছু না জেনে, ফ্রীল্যান্সিং শুরু করা ঠিক না। প্রথমে নিজেকে তৈরি করুন এবং এরপর শুরু করুন। খুব ভাল হয়, আপনি যদি কোন একটা বা একাধিক কাজের উপর প্রশিক্ষন নেন। যেমন ধরুন, ওয়েব ডিজাইন এর কথা HTML, CSS দিয়ে আপনি কাজ শুরু করতে পারেন এবং কাজ করতে করতে নিজেকে আর দক্ষ করে তুলতে পারেন। কাজ করার জন্য সময় নির্বাচন, কমপিউটার এবং অন্য সব কিছু ঠিক করে নিতে হবে এবং সর্বোপরি নিজেকে কাজ করার উপযোগী করে তুলতে হবে এবং আমি আবার বলছি, এক্ষেত্রে প্রশিক্ষন এর কোন বিকল্প নেই। আপনার নিজের কিছু কাজের নমুনা, (Portfolio), কোন নিজস্ব ব্লগ, ফোরাম আপনাকে অন্নদের থেকে এগিয়ে রাখবে, এর যদি আপনার নিজস্ব ওয়েব পেইজ থাকে তাহলে অনেক ভাল হয়।

error: দুঃখিত, অনুলিপি করা যাবে না ! পরে এই কন্টেন্ট প্রয়োজন হলে আপনার সামাজিক অ্যাকাউন্টের সাথে ভাগ করুন।