নিবন্ধ

মোবাইলের যত্ন – যেই নিয়মগুলো মানলে মোবাইল টিকবে অন্তত ৫ বছর

টাচস্ক্রিন মোবাইল

অনেক টাকা খরচ করে কেনা শখের মোবাইলটি যদি দ্রুত নষ্ট হয়ে যায় তাহলে কষ্ট লাগাটাই স্বাভাবিক । তাই আমরা এখানে আপনাদের জন্য কিছু সহজ মোবাইলের যত্ন নেয়ার উপায় তুলে ধরছি যা আপনার মোবাইলকে কয়েকবছর ব্যবহার উপযোগি রাখবে । আসলে মোবাইলের যত্ন নেয়ার জন্য খুব কঠিন কিছু করতে হবেনা, সাধারন কয়েকটি নিয়ম মেনে চললেই মোবাইল অনেকদিন ভালো থাকবে । চলুন দেখে নেই নিয়মগুলো ।

মোবাইলের যত্ন নেত্তয়ার টিপস –

* মোবাইলে কভার ব্যবহার: মোবাইলে কভার ব্যবহার করুন । মোবাইলে কভার ব্যবহার করলে তা দীর্ঘদিন মোবাইল টিকতে সহায়তা করে । এটি মোবাইলকে ধূলাবালি থেকে রক্ষা করে, রং উজ্জল রাখে এবং মোবাইলের উপর চাপ পড়া প্রতিরোধ করে । অনেক সময় আমাদের হাত থেকে মোবাইল পরে যায় । কভার থাকলে হাত থেকে মোবাইল পরে গেলেও ক্ষতি কম হওয়ার সম্ভবনা থাকে কারন প্রাথমিক ধকলটা কভারের উপর দিয়েই যায় । তাই মোবাইলের জন্য কভার ব্যবহার খুবই উপকারি ।

* স্ক্রিনপেপার ব্যবহার : টাচস্ক্রিন মোবাইলের জন্য স্ক্রিন প্রোটেকশন পেপার ব্যবহার করলে তা মোবাইলের স্ক্রিন সুরক্ষিত রাখতে ভালো ভূমিকা পালন করে থাকে । এছাড়া এটি ধূলাবালি প্রতিরোধ করে এবং স্ক্রিনে আচড় পরা থেকে বাচিয়ে স্ক্রিন উজ্জল রাখে ।

* মোবাইল রিস্টার্ট : স্মার্টফোনে আমরা বিভিন্ন এপস ব্যবহার করি । কিছু কিছু এপস আছে যেগুলো আপনি ব্যবহার করে বের হয়ে যাওয়ার পরও চালু থেকে যায়, আবার কিছু এপস আছে যেগুলো ইন্টারনেট সংযোগ চালু করলে আপনার অনুমতি ছাড়াই নিজে নিজে চালু হয়ে যায় । এর ফলে আপনার অজান্তেই মোবাইলের RAM/ROM/ব্যাটারি ব্যবহার হতে থাকে, যা মোবাইলের আয়ু কমিয়ে দেয় । এই সমস্যা থেকে বাচতে সপ্তাহে ১ বার মোবাইল রিস্টার্ট করুন বা মোবাইলটি বন্ধ করে আবার চালু করুন । রিস্টার্ট করলে চালু থেকে যাওয়া এপস গুলো বন্ধ হবে ।

* সঠিক নিয়মে ব্যাটারি চার্জ করুন : ব্যাটারি চার্জ দেয়ার কিছু নিয়ম কানুন রয়েছে । মাসে অন্তত ১ বার মোবাইল একটানা পরিপূর্ন চার্জ করুন । অর্থ্যাৎ ০% থেকে ১০০% পর্যন্ত চার্জ করুন । মোবাইল ব্যবহার করতে করতে চার্জ শেষ হয়ে যখন সেটি বন্ধ হয়ে যাবে তখন সেটিকে চার্জে লাগিয়ে একটানা ১০০% চার্জ করুন । এভাবে করলে মোবাইলের ব্যাটারি ভালো থাকে । এছাড়া মোবাইলে অনেকখানি চার্জ বাকি থাকতেই চার্জ দেয়ার প্রয়োজন নেই । আমরা অনেকেই ৬০% বা ৭০% চার্জ থাকতেই আবার চার্জ দেই । এমন করার দরকার নেই । যখন ব্যাটারিতে ২৫% বা তার কম চার্জ থাকবে তখন সেটিকে চার্জ দিন ।

* অনুমোদিত ব্যাটারি এবং চার্জার ব্যবহার : মোবাইল দীর্ঘদিন টিকাতে চাইলে মোবাইলের সাথে দেয়া অরজিনাল ব্যাটারি এবং চার্জার ব্যবহার করুন । কোন কারনে যদি সেগুলো নষ্ট হয়ে যায় তাহলে অনুমোদিত ব্যাটারি এবং চার্জার ব্যবহার করুন ।

* হেডফোন ব্যবহার : গান শুনতে এবং চলচিত্র দেখতে সরাসরি মোবাইলের স্পিকার ব্যবহার না করে হেডফোন ব্যবহার করুন । হেডফোন ব্যবহার করে গান শুনলে ও ভিডিও দেখলে মোবাইলের স্পিকারের উপর চাপ পরবেনা । ফলে স্পিকারটি দীর্ঘদিন ভালো থাকবে বলে আশা করা যায়।

* মোবাইলে গেম খেলা বন্ধ করুন : মোবাইলে গেম খেললে মোবাইলের উপর অতিরিক্ত চাপ পরে এবং মোবাইলের স্ক্রিনও ক্ষতিগ্রস্থ হয় । তাই মোবাইলে গেম খেলা থেকে বিরত থাকা উচিত ।

* এক হাতে মোবাইল চালানো : এক হাতে মোবাইল চালানো বলতে একজনের হাতে মোবাইল চালানোর কথা বলছি । একটি মোবাইল বিভিন্ন মানুষ ব্যবহার করলে তা ভালো নয়, কারন একেকজন একেক ভাবে ব্যবহার করে ।

* আলতোভাবে মোবাইল চাপুন : বাটন মোবাইল বা টাচস্ক্রিন মোবাইল উভয়টির জন্যই এই নিয়ম প্রযোজ্য । মোবাইলের বাটনে বা স্ক্রিনে যথাসম্ভব আলতোভাবে চাপ দিন । জোরে চাপ দিলে তা বাটন ও স্ক্রীনের স্পর্শকাতরতা নষ্ট করে ফেলে ।

* খুব দীর্ঘক্ষন একটানা মোবাইল ব্যবহার না করা : আমরা অনেকেই একটানা ঘন্টার পর ঘন্টা মোবাইল ব্যবহার করে থাকি । একটানা দীর্ঘক্ষন ইন্টারনেট ব্যবহার বা ভিডিও দেখে থাকি । এগুলো মোবাইলের ব্যাটারি ও স্ক্রিনের জন্য ক্ষতিকর । তাই একটানা খুব বেশিক্ষন মোবাইল ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন ।

* পানি এবং তাপ থেকে দুরে রাখুন : মোবাইলকে স্বাভাবিক তাপমাত্রায় রাখুন । পানি এবং তাপ থেকে যথাসম্ভব দুরে রাখুন । সরাসরি সূর্যের আলোতে বেশিক্ষন মোবাইল ব্যবহার করবেননা ।

আশা করি উপরের নিয়মগুলো মেনে মোবাইলের যত্ন নিলে আপনার মোবাইল ৫ বছর বা তারও বেশিদিন ব্যবহার করতে পারবেন ।

ট্যাগ গুলো

মতামত যোগ করুন

মতামত দিতে ক্লিক করুন

error: দুঃখিত, অনুলিপি করা যাবে না ! পরে এই কন্টেন্ট প্রয়োজন হলে আপনার সামাজিক অ্যাকাউন্টের সাথে ভাগ করুন।