বাংলা সংবাদ

সড়ক দূর্ঘটায় জ্ঞান হারান ১৯৯১ সালে, জ্ঞান ফিরলো ২৭ বছর পর !

ইতালির একটি হাসপাতালে কোমার এই রোগীর ছবি রয়টার্সের তোলা ২০১৪ সালের ১৬ ডিসেম্বর

সংযুক্ত আরব আমিরাতের এক মহিলা ১৯৯১ সালে সড়ক দূর্ঘটনায় মারাত্বক আহত হয়ে কোমায় চলে যান ।

দীর্ঘ সময় কেটে যাওয়ার পরও তার জ্ঞান না ফেরায় একসময় সবাই তার আশা ছেড়ে দেন । কিন্তু তার ছেলে তবুও তার চিকিৎসা চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন । মাঝখানে কেটে যায় দীর্ঘ ২৭ বছর । আর অলৌকিক ভাবে দীর্ঘ ২৭ বছর পর কয়েকমাস আগে জ্ঞান ফিরে আসে তার । আর জ্ঞান ফিরে আসার কয়েক মাসের মধ্যেই তিনি দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠেন ।

১৯৯১ সালে ঐ সড়ক দুর্ঘটনার সময় মাথায় আঘাত পেয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলা মুনীরা আব্দুল্লাহর বয়স ছিল ৩২ বছর। স্কুল থেকে নিজের ৪ বছরের ছেলে ওমরকে নিয়ে ফেরার পথে সড়ক দূর্ঘটনায় মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়েছিলেন তিনি।

গাড়িটি যখন এক্সিডেন্ট হয় ঠিক সেই মূহূর্তে ছেলে ওমরকে রক্ষার জন্য আগলে ধরেন তিনি । ফলে তার ছেলে খুব বেশি আহত না হলেও তিনি নিজে গুরুতর আহত হন । মাথায় প্রচন্ড আঘাতের ফলে কোমায় চলে যান তিনি ।

প্রথমদিকে সবাই ভেবেছিলো হয়তো কিছুদিনের মধ্যে তার জ্ঞান ফিরে আসবে । কিন্তু মাসের পর মাস, এমনকি একসময় বছর পেরিয়ে গেলেও তার জ্ঞান ফিরে না আশায় সবাই তার আশা ছেড়ে দেন । কিন্তু তার ছেলে তার চিকিৎসা চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন ।

কিছুদিন আগে ওমর আমিরাতভিত্তিক পত্রিকা দ্য ন্যাশনালকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ওই দুর্ঘটনা এবং মায়ের উন্নতির কথা জানান ।
ওমর বলেন, “আমি কখনো তাকে ছাড়িনি। কারণ আমার সব সময় মনে হত, এক সময় উনি জেগে উঠবেন। তার কথা প্রকাশ করলাম এই কারণে যে, আমি মানুষকে বলতে চাই- প্রিয়জনকে নিয়ে আশা হারাবেন না। এ রকম অবস্থায় গেলে ভাববেন না তারা মারা গেছে।”

ট্যাগ গুলো

মতামত যোগ করুন

মতামত দিতে ক্লিক করুন

error: দুঃখিত, অনুলিপি করা যাবে না ! পরে এই কন্টেন্ট প্রয়োজন হলে আপনার সামাজিক অ্যাকাউন্টের সাথে ভাগ করুন।