June 21, 2021

নামাজে সূরা মিলানোর নিয়ম ও অন্যান্য প্রাসঙ্গিক বিষয়

namaz, মনের আশা পুরনের দোয়া, নামাজ

সঠিক ভাবে নামাজ পড়ার জন্য নামাজের নিয়ম-কানুনগুলো জেনে রাখা জরুরি। তাই এবার আমরা আপনাদের জন্য নামাজে সূরা মিলানোর নিয়ম বিস্তারিত তুলে ধরবো। কোন নামাজে কখন, কিভাবে সুরা ফাতেহার পরে অন্য সুরা পড়তে হয় তা আমরা অনেকেই ভালোমতো জানিনা, অথচ নামাজ যেন ভুল না হয় সেজন্য বিষয়টি জেনে রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ন।

নামাজে সুরা ফাতেহার পর আমরা অন্য আরেকটি সুরা পড়ে থাকি। সুরা ফাতেহার পর অন্য সুরা পড়ার এই বিষয়টিকেই সুরা মিলানো বলা হয়ে থাকে।

ফরজ, ওয়াজিব, সুন্নত ও নফল নামাজে কোন রাকাতে কিভাবে সুরা ফাতেহার পর অন্য সুরা পড়তে হয় তার কিছু আলাদা আলাদা নিয়ম-কানুন রয়েছে। চলুন নিয়মগুলো জেনে নেই।

ফরজ নামাজে সূরা মিলানোর নিয়ম :

ফরজ নামাজের ক্ষেত্রে ১ম ও ২য় রাকাতে সুরা ফাতেহা পড়ার পরে অন্য আরেকটি সুরা পড়তে হয়। ফরজ নামাজ যদি দুই রাকাতের বেশি হয় তবে শুধু প্রথম দুই রাকাতে সুরা ফাতেহার পর অন্য সুরা পড়তে হবে কিন্তু ৩য় বা ৪র্থ রাকাতে অন্য সুরা পড়তে হবেনা।

যেমন, ফজরের ফরজ নামাজ দুই রাকাত। তাই ফজরের দুই রাকাত ফরজ নামাজে আলহামদুলিল্লাহ সুরা( সুরা ফাতেহাকেই আলহামদুলিল্লাহ সুরা বলা হয়) পড়ার পরে অন্য সুরা পড়তে হবে কিন্তু যোহর, আসর, মাগরিব ও এশার ফরজ নামাজ দুই রাকাতের বেশি। এই নামাজ গুলোতে শুধু ১ম ও ২য় রাকাতে সুরা ফাতেহার পর অন্য সুরা পড়তে হবে কিন্তু ৩য় বা ৪র্থ রাকাতে সুরা ফাতেহা পড়ার পরে অন্য সুরা পড়া লাগবেনা। তবে কেউ যদি ভুলে পড়ে ফেলে তবুও নামাজ হবে কিন্তু ইচ্ছা করে পড়া যাবেনা।

ওয়াজিব, সুন্নত ও নফল নামাজের ক্ষেত্রে কিভাবে সুরা মিলাতে হবে?

* ওয়াজিব নামাজের ক্ষেত্রে যত রাকাত নামাজ পড়বেন তত রাকাতেই আলহামদুলিল্লাহ সুরার পর অন্য সুরা পড়তে হবে। না পড়লে নামাজ সহিহ হবেনা।
যেমন বেতরের তিন রাকাত ওয়াজিব নামাজের ক্ষেত্রে ১ম, ২য় ও ৩য়- সবগুলো রাকাতেই আলহামদুলিল্লাহ সুরা পড়ার পরে অন্য আরেকটি সুরা পড়তে হবে।

* সুন্নত নামাজের ক্ষেত্রেও প্রতি রাকাতে আলহামদুলিল্লাহ সুরা পড়ার পরে অন্য আরেকটি সুরা পড়তে হবে। সুন্নাত নামাজ দুই রাকাত হোক বা চার রাকাত হোক, সবগুলোতেই অন্য আরেকটি সুরা পড়া লাগবে। এটি আবশ্যক। যদি কোন এক রাকাতেও অন্য সুরা না পড়েন তাহলে সেই নামাজ হবেনা।

এক্ষেত্রে কোন ভূল হলে পুনরায় নামাজ পড়তে হবে বা সাহু সেজদার মাধ্যমে নামাজটি শুদ্ধ করে নিতে হবে।

* নফল নামাজের ক্ষেত্রেও ওয়াজিব ও সুন্নাত নামাজের মতো প্রতি রাকাতেই সুরা ফাতেহার পরে অন্য সুরা পড়তে হবে।

প্রাসঙ্গিক কয়েকটি কথা-

* নামাজে সুরা ফাতেহার পরে অন্য সুরা পড়ার সময় প্রতিবার বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম বলতে হবেনা।

* সুরা ফাতেহার পরে প্রতি রাকাতে একই সুরা বারবার না পড়ে ভিন্ন ভিন্ন সুরা পড়া উত্তম।

* তবে কেউ যদি একাধিক সুরা না পারে তবে নিরুপায় হয়ে প্রতি রাকাতে একই সুরা বারবার পড়লেও নামাজ আদায় হবে কিন্তু দ্রুত অন্য আরো কয়েকটি সুরা শিখে নিতে হবে।
কোরআন শরিফে বেশ কিছু ছোট ছোট সুরা রয়েছে। সেগুলি দ্রুত শিখে নিতে পারেন।

উপরে উল্লেখিত নামাজে সূরা মিলানোর নিয়ম সমূহ মেনে সঠিক ভাবে নামাজ আদায় করতে হবে। আল্লাহ আমাদের সকলকে সঠিকভাবে নামাজ আদায় করার তৌফিক দান করুন। আমিন।
লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করে আমাদের উৎসাহ দেয়ার অনুরোধ রইলো। এমন আরো বিভিন্ন তথ্যবহুল বিষয় জানতে নিয়মিত ভ্রমন করুন আমাদের ওয়েবসাইটে। ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *